ঢাকা ২০ এপ্রিল, ২০২৪
সংবাদ শিরোনাম
পটিয়ায় হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন পটিয়ায় ক্বলবে কুরআন আলো ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান পটিয়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে বাঁচাতে গিয়ে হামলার শিকার একজন পটিয়া এলডিপির ইফতার মাহফিল সম্পন্ন আনোয়ারায় ভাইয়ের বিরুদ্ধে জোরপূর্বক জায়গা দখলের অভিযোগ আ'লীগ নেতাদের ঈদ উপহার পৌঁছে দিলেন মেয়র আইয়ুব বাবুল উখিয়ায় বিট অফিসার সজল হত্যার ঘটনায় শোক ও প্রতিবাদ সভা ধরা’র নাগরিক অবস্থান "গাছ বাঁচাও প্রকৃতি বাঁচাও " এবং বনকর্মকর্তা সজলের নৃশংস হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে কর্মসূচী রাজনৈতিক সৌহার্দ্যেকে এগিয়ে নিতে যুব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সাথে এমএএফ কক্সবাজারের সভা পটিয়ায় র‍্যাবের হাতে অস্ত্র কার্তুজ সহ গ্রেফতার শীর্ষ ব্যবসায়ী হামিদ-ধরা ছোয়ার বাইরে গডফাদার সোহেল

ভিক্ষার ৬৪ লাখ টাকা দান করলেন বৃদ্ধ

#

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩,  7:11 PM

news image

তামিল নাড়ুর থুথুকুডি জেলার এক ভিক্ষুক মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বাংলাদেশি মুদ্রায় সাড়ে ৬৪ লাখ টাকা দান করে নজির গড়েছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮ জানিয়েছে, নিজেই ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবনযাপন করতেন। সেই তিনি তিলে তিলে জমানো টাকা করেছেন দান। টাকার পরিমাণ শুনলেও যেকারও চোখ কপালে উঠতে পারে। 

পুলপান্দিয়ান নামে ওই বৃদ্ধ ২০২০ সালের মে মাসে থুথুকুডি জেলায় মুখ্যমন্ত্রীর প্রথম তহবিলে ১০ হাজার রুপি দান করেন। এরপর বিভিন্ন জেলায় আটবার ১০ হাজার রুপি করে দান করেছেন ।

৭২ বছর বয়সী পুলপান্দিয়ান সিএনএন নিউজ১৮-কে বলেন, তিনি একা মানুষ এবং ভিক্ষা করে যা টাকা জমিয়েছেন তা আর দরকার নেই।

তিনি আরও বলেছেন, যেহেতু আমার কোনও পরিবার নেই, আমি রাজ্যের প্রতিটি জেলায় গেছি এবং ভিক্ষাবৃত্তি করে টাকা জমাই। এরপর এসব জায়গা থেকে চলে আসার আগে জেলা কালেক্টরেটের কাছে যাই এবং দরিদ্রদের সাহায্য করার জন্য অর্থ প্রদান করি। গত পাঁচ বছরে আমি ৫০ লাখের বেশি রুপি দান করেছি। 


খবরে বলা হয়েছে, পুলপান্দিয়ান এক সময় বড় পরিবার ছিল। ঘরে ছিল দুই সন্তান ও স্ত্রী। ১৯৮০ সালের দিকে তিনি পরিবারসহ মুম্বাই আসেন এবং কোনমতে চাকরি করে পরিবারের হাল টানতেন। কিন্তু অভাব ও খারাপ জীবনযাত্রার কারণে তার স্ত্রী সরস্বতী প্রায় ২৪ বছর আগে মারা যান। এরপর তিনি একাই তার দুই সন্তানকে বড় করেন এবং বিয়ে দেন। পরবর্তীতে তিনি তামিল নাড়ুতে ফিরে যান।


কিন্তু তার দুই সন্তান পুলপান্দিয়ানের ভরণপোষণ করতে রাজি ছিলেন না এবং বাধ্য হয়েই ভিক্ষা শুরু করেন তিনি। এরপর একার জন্য যা লাগলো তা খরচ করে বাকি ভিক্ষার টাকা জমিয়ে রাখতেন। ২০২০ সালে সমাজসেবার জন্য তামিলনাড়ু সরকারের পক্ষ থেকে সম্মানিত করা হয় এই বৃদ্ধকে।





logo

সম্পাদক : হেফাজুল করিম রকিব

নির্বাহী সম্পাদক : শাহ এম রহমান বেলাল